শনিবার, ৩১ জুলাই ২০২১, ১৬ শ্রাবণ ১৪২৮

রাত পোহালেই পবিত্র ঈদুল আজহা: শিক্ষা পত্রিকার পাঠক, শুভানুধ্যায়ী সবাইকে জানাই ঈদের শুভেচ্ছা

  • স্পেশাল করেসপন্ডেন্ট
  • ২০২১-০৭-২০ ১৯:৩০:৩২
image

রাত পোহালেই পবিত্র ঈদুল আজহা। মহান ত্যাগের মহিমায় ভাস্বর মুসলিম উম্মাহর বৃহৎ ধর্মীয় উৎসব ঈদুল আজহা আগামীকাল বুধবার। বাংলাদেশের করোনা পরিস্থিতির ভয়াবহতার মধ্যে আবারও এসেছে কোরবানির ঈদ। ঈদুজ্জোহার চাঁদ হাসে ঐ এল আবার দুসরা ঈদ! কোরবানী দে, কোরবানী দে, শোন খোদার ফরমান তাগিদ...কবি কাজী নজরুল ইসলামের এই কাব্যসুর আকাশ-বাতাস মন্দ্রিত করে মনপ্রাণ উজালা করে তুলছে ঈদের আনন্দ রোশনাইয়ে। আল্লাহ তায়ালার প্রতি অপার আনুগত্য এবং তারই রাহে সর্বোচ্চ আত্মত্যাগের এক ঐতিহাসিক ঘটনার স্মরণে মুসলিম বিশ্বে ঈদুল আজহা উদ্যাপিত হয়ে আসছে।

মুসলিম জাতির পিতা হজরত ইব্রাহিম (আ.)-এর আত্মত্যাগ ও অনুপম আদর্শের প্রতীকী নিদর্শন হিসেবে কোরবানির রেওয়াজ। আল্লাহ রাব্বুল আলামিনের নির্দেশে হজরত ইব্রাহিম (আ.) তার প্রাণপ্রিয় পুত্র হজরত ইসমাইলকে (আ.) কোরবানি করতে উদ্যত হয়েছিলেন। এই অনন্য ঘটনার স্মরণে কোরবানি প্রচলিত হয়। ইসলামের পরিভাষায় কোরবানি হলো নির্দিষ্ট পশুকে একমাত্র আল্লাহর নৈকট্য ও সন্তুষ্টি লাভের উদ্দেশ্যে নির্দিষ্ট সময়ে তারই নামে জবেহ করা। মহান সৃষ্টিকর্তার দরবারে জবাই করা পশুর মাংস বা রক্ত কিছুই পৌঁছায় না, কেবল নিয়ত ছাড়া। ঈদুল আজহার অন্যতম শিক্ষা হচ্ছে, মনের পশু অর্থাত্ কুপ্রবৃত্তিকে পরিত্যাগ করা। মনের পশুরে কর জবাই পশুরাও বাঁচে, বাঁচে সবাই... 

গরু, মহিষ, উট, ছাগল, ভেড়া, দুম্বা এ শ্রেণির প্রাণী দ্বারা কোরবানি করা যায়। কোরবানিকৃত পশুর তিন ভাগের এক ভাগ গরিব-মিসকিন, এক ভাগ আত্মীয়স্বজনের মধ্যে বিলিয়ে দিতে হয়। আবার পুরোটাই বিলিয়ে দেওয়া যায়। এদিকে ৯ জিলহজ ফজর নামাজের পর থেকে ১৩ জিলহজ আসর পর্যন্ত প্রত্যেক ফরজ নামাজের পর তাকবিরে তালবিয়া পাঠ করা ওয়াজিব। তালবিয়াহ হলো, আল্লাহু আকবার, আল্লাহু আকবার, লা-ইলাহা ইল্লাল্লাহু ওয়াল্লাহু আকবার, আল্লাহু আকবার, ওয়ালিল্লাহিল হামদ।

করোনার কারণে কোরবানির পশুর হাট স্বাস্থ্যবিধি বজায় রেখে বসানোর কথা বলা থাকলেও এ নিয়ম কোথাও মানা হয়নি। ফলে কোরবানির হাটগুলো হয়ে উঠতে পারে করোনার ভয়াবহ বিস্তারকারী। ঈদের পর কঠোর লকডাউনের কথা বলা আছে সরকারি প্রজ্ঞাপনে। ঈদ উপলক্ষ্যে যারা গ্রামের বাড়ি যবেন, যে সমস্ত শ্রমিক, গার্মেন্টস কর্মী ঈদে বাড়ি যাবেন তারা আবার ফিরবেন কি করে- এই দোলাচলে এবারের ঈদ উদযাপিত হবে। তারপরও ঈদুল আজহা সবার জন্য ত্যাগের মহিমায় ভাস্বর হয়ে উঠুক- এই শুভকামনা। শিক্ষা পত্রিকার পাঠক, শুভানুধ্যায়ী, দেশবাসী সবাইকে পবিত্র ঈদুল আজহার শুভেচ্ছা জানাই।

স্বাস্থ্যবিধি মেনে মসজিদে ঈদের জামাত

করোনা মহামারির কারণে দেশে উত্সবমুখর পরিবেশ ফিকে হয়ে উঠেছে। লকডাউন এবং বিধিনিষেধের কারণে অনেকে এবার গ্রামের বাড়িতে যাননি। সরকারি কর্মকর্তা কর্মচারীদের কর্মস্থলেই থাকার জন্য নির্দেশনা প্রদান করা হয়েছে। ঈদকে সামনে রেখে জাতীয় দৈনিকগুলো বিশেষ আয়োজনে বের হয়েছে। বাংলাদেশ টেলিভিশন, বাংলাদেশ বেতার, সব কটি বেসরকারি টিভি চ্যানেল ও এফএম রেডিও ঈদ উপলক্ষ্যে কয়েক দিনব্যাপী বিশেষ অনুষ্ঠানমালা সম্প্রচার করছে। দেশবাসীকে পবিত্র ঈদুল আজহার শুভেচ্ছা জানিয়ে বাণী দিয়েছেন রাষ্ট্রপতি অ্যাডভোকেট আবদুল হামিদ, প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনাসহ বিভিন্ন রাজনৈতিক দল, সামাজিক ও সাংস্কৃতিক সংগঠনের নেতৃবৃন্দ। এ বছর করোনার কারণে জাতীয় ঈদগাহ ময়দানে ঈদের জামায়াত অনুষ্ঠিত হবে না। বায়তুল মোকাররম মসজিদে সকাল ৭টা থেকে পাঁচটি জামায়াত অনুষ্ঠিত হবে। স্বাস্থ্যবিধি মেনে ময়দানে জামায়াত করা যাবে। এবারও বাংলাদেশের কোথাও জাতীয় ঈদগাহগুলোকে ঈদের জামাত হবে না। সীমিত পরিসরে স্বাস্থ্যবিধি বজায় রেখে মসজিদগুলোতে ঈদের জামাত আদায় করার নির্দেশনা দেয়া আছে।


এ জাতীয় আরো খবর